, ,

Facebook
Twitter
LinkedIn
WhatsApp

বার্সেলোনার লাতিন আমেরিকান ত্রয়ী “এমএসএন” এই যুগের তো বটেই, ফুটবল ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা ত্রয়ী হিসেবে বিবেচিত হয়। সময়ের পরিক্রমায় সেই ত্রয়ী বিচ্ছিন্ন হয়ে একেকজন খেলছেন ভিন্ন ক্লাবে, ভিন্ন মহাদেশে। সময়ের সাথে অনেক কিছুর পরিবর্তন হলেও তাদের তিনজনের বন্ধুদের বন্ধনে বিন্দুমাত্র চিড় ধরেনি। একে অপরকে নিয়ে তারা যখন কথা বলে ঠিক তেমনটাই মুগ্ধতা তাদের চোখে মুখে দেখা যায় যেমনটা তাদের খেলা দেখে ফুটবল প্রেমিরা মুগ্ধ হতো।

মেসি-সুয়ারেজ-নেইমারের বন্ধুত্বকে বর্ণনা করার মতো শব্দ দুনিয়ায় খুব কমই এসেছে তাই তারা যখন নিজেদের সেই সময়ের গল্প বলেন তখন সেই কথাগুলো আবেগকে স্পর্শ করে যেতে বাধ্য। এই যেমন গতকাল সেই বিখ্যাত ত্রয়ী নিতে কথা বলতে গিয়ে লুইস সুয়ারেজ নিজেই আবেগপ্রবণ হয়ে যান। ২০১৫/১৬ মৌসুমে মেসি-রোনালদোর দাপট চলাকালীন সময়ে লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়ে অনেককেই চমকে দিয়েছিলেন লুইস সুয়ারেজ। তবে তার এই অর্জনের পেছনেও আছে মেসি-নেইমারের বিশেষ ভূমিকা।

২০১৫/১৬ মৌসুমের গোল্ডেন বুট হাতে লুইস সুয়ারেজ

সুয়ারেজ গোল্ডেন বুট জয়ের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, “মেসি এবং নেইমার আমাকে গোল্ডেন বুট জিততে সাহায্য করেছিলো। আমার মনে আছে, একটি আক্রমণে মেসি বলটি নেইমারের কাছে দিয়েছিলো এবং নেইমার গোলরক্ষকের সামনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করছিলো, আমি আসছি কিনা তা দেখার জন্য কারণ আমি সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার জন্য ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিলাম এবং নেইমার বলছিলো, ‘এসো এবং গোল করো'”

“এমনকি শেষ পাঁচটি ম্যাচে পেনাল্টি কিকের ক্ষেত্রেও, তারা বলেছিলো, “তুমি শুট করো, তুমি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছো”, তাই আমি পুরস্কার পেয়েছিলাম এবং এটি ছিলো আমার কাছে সহযোগিতার সর্বোচ্চ উদাহরণ”

শেয়ার করুন

আরো পড়ুন

ইউরোপীয় ক্লাব ফুটবলের শীর্ষ আসর চ্যাম্পিয়নস লিগ মানেই তারায় তারায় টক্কর, সেই তারার লড়াই যদি হয় বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি […]

Scroll to Top